মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

জাত উন্নয়নে কৃত্রিম প্রজনন

হরিণাকুন্ডু উপজেলায় কৃত্রিম প্রজনন কার্যক্রমসংক্রান্ত তথ্যাবলীঃ

ভূমিকাঃ         গবাদি পশুর বংশ বিস্তার ঘটে প্রজননেরমাধ্যমে। গাভীর ডিম্বাশয় হতে আগত ডিম্বানুর সাথে ষাঁড়ের শুক্রাণুর মিলনেরফলে ভবিষ্যত প্রজন্মের উদ্ভব হয়। ভালো বীজে যেমন ভালো ফসল হয়, তেমনি ভালোজাতের ষাঁড়ের সিমেন দ্বারা কৃত্রিম প্রজনন করালে ভালো জাতের বাছুর উৎপন্নহয়। সুতরাং কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে ভালো জাতের গবাদি পশু উৎপাদন করতেপারলে দুধ ও মাংসের উৎপাদন বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে। যার মাধ্যমে আমাদেরআমিষের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হবে।

কৃত্রিম প্রজননের সুবিধাঃ

K)  একটি ভালো জাতের ষাঁড় থেকে একবারে সংগৃহীত বীজ দ্বারা ১০০-৪০০ টি গাভীকে প্রজনন

করানো যায়।

L)   দেশী গাভী থেকে উন্নত জাতের বাছুর উৎপাদন করা যায়।

M)           কৃত্রিম প্রজনন পদ্ধতিতে কম খরচে অনেক গাভীকে প্রজনন করানো যায়।

N)কৃত্রিম প্রজনন যেকোনো স্থানে যেকোনো সময়ে করা যায়।

O)  কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে নতুন জাত উৎপন্ন করা যায়।

গাভী/বকনার ডাক (গরম হওয়ার) আসার লক্ষণঃ

1)     বকনা/গাভী অন্য গরুর উপর লাফিয়ে উঠতে চেষ্টা করে ও নিজের উপর অন্য গরুকে উঠতেসহায়তা করে এবং স্থির হয়ে দাড়িয়ে থাকে।

2)    অতিরিক্ত ডাকাডাকি করে।

3)    অস্থির/অশান্ত থাকে।

4)     ঘন ঘন প্রস্রাব করে।

5)     খাদ্য গ্রহণের পরিমাণ কমে যায়।

6)    দুধ উৎপাদন কমে যায়।

7)     যোনিদ্বার হালকা ফোলা ভাব দেখা যায় এবং ভিতরের দিকটা একটু বেশি লালচে দেখা যায়।

8)    যোনিদ্বার দিয়ে মিউকাস বা আঠালো বিজলে বাহির হয়।

কৃত্রিম প্রজননের সময়ঃ  কৃত্রিম প্রজননের জন্য সময়অত্যন্ত জরুরী বিষয়। সঠিক সময়ে প্রজনন করাতে না পারলে বকনা/গাভী গর্ভবতী হয়না। তাই বকনা/গাভী যখন প্রথম ডাক দেয় তখন থেকে ১২ ঘণ্টা পরে এবং ১৮ ঘণ্টারভিতরে বকনা/গাভীকে কৃত্রিম প্রজনন করাতে হয়। অনেক বকনা/গাভীর ৩ দিনপর্যন্ত ডাক থাকে। কিন্তু সেই বকনা/গাভীকে ডাক আসার ১২ থেকে ১৮ ঘণ্টারভিতরেই কৃত্রিম প্রজনন করাতে হবে।

 

হরিণাকুন্ডু উপজেলায় কৃত্রিম প্রজনন কাজে নিয়োজিত কর্মচারী ও স্বেচ্ছাসেবীদের পরিচিতিঃ

অত্র উপজেলায় মাত্র একজন সরকারী এফ.এ(এ.আই) এবং ৮ জন কৃত্রিম প্রজননস্বেচ্ছাসেবী কৃত্রিম প্রজনন কাজ করে থাকেন। তাদের পরিচিতি নিন্মে দেওয়াহলোঃ

ক্রমিক নং

প্রজনন কারীর নাম

পদবী

মোবাইল নম্বর

কর্ম এলাকা

বি.এম. এমদাদুল হক

কৃত্রিম প্রজনন মাঠ সহকারী এফ.এ(এ.আই)

০১৭১৯২৬৮০৮২

         ও   ০১৯১২৬৭৯০২৯

সমগ্র হরিণাকুন্ডু উপজেলা

মোঃ সুলতান আহম্মেদ

কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী

০১৭১৪৬৭০০৮৮

হরিণাকুন্ডু পৌরসভার বেল্টুর মোড়

মোঃ মোতালিব হোসেন

কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী

০১৭১৯৬২৭৬৫০

চাঁদপুর ইউনিয়ন

মোঃ আব্দুল মান্নান

কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী

০১৭১৬৮৩১৮১২

কাপাষহাটিয়া ইউনিয়ন

মোঃ শরিফুল ইসলাম

কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী

০১৭৪৩৯৯২৬৯০

তাহেরহুদা ইউনিয়ন

মোঃ জিয়াউর রহমান

কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী

০১৭২৮৪৫২৬৪৪

ভায়না ইউনিয়ন

মোঃ তৌফিকুজ্জামান

কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী

০১৭২৩৩৩৩০৯১

জোড়াদহ ইউনিয়ন

মোঃ কামাল হোসেন

কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী

০১৭৩৪৯৫৪৮৪৮

দৌলতপুর ইউনিয়ন

বি.এম আরিফ হোসেন

কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী

০১১৯৫০৩১২৭০

রঘুনাথপুর ইউনিয়ন

 

 

কৃত্রিম প্রজনন উপকেন্দ্র ও কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী কর্তৃক পরিচালিত কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রে কৃত্রিম প্রজননের  নির্ধারিত ফিঃ

 

ক্রমিক নং

প্রজনন কেন্দ্রের নাম

তরল সিমেনের মূল্য

হিমায়িত সিমেনের মূল্য

মন্তব্য

উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর, হরিণাকুন্ডুর উপকেন্দ্রে কৃত্রিম প্রজনন সহকারী কর্তৃক

১৫.০০

৩০.০০

দ্বিতীয় ও তৃতীয় প্রজনন ফ্রি

কৃত্রিম প্রজনন স্বেচ্ছাসেবী কর্তৃক পরিচালিত কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রে

৫৫.০০

৭০.০০

দ্বিতীয় ও তৃতীয় প্রজনন ফ্রি

         

 

 

 

 

ছবি


সংযুক্তি