মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কার্যবিবরণী ও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

উপজেলা পরিষদ সাধারণ সভার কার্যবিবরণীঃ

জুলাই-২০১৩ মাস

অধিবেশন নংঃ ৮/২০১৩

 

সভাপতি     ঃ             মোঃ সাজেদুল ইসলাম

                        প্যানেল চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ

                        হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ।

 

সভার তারিখঃ ২৯-০৭-২০১৩ খ্রিঃ।

সভার সময়  ঃ      বেলাঃ ১১.৩০ টা

সভার স্থান   ঃ     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ।

 

সভায় উপস্থিতিঃ

 

সভায় উপস্থিত ও অনুপস্থিত সভ্যগণের নাম পরিশিষ্ট ‘‘ক’’ তে উল্লেখ করা হ’ল।

 

সভার প্রারম্ভে সভাপতি উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানিয়ে সভা শুরু করেন। তিনি সভাটি পরিচালনার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার, হরিণাকুন্ডুকে দায়িত্ব প্রদান করেন।

 

আলোচ্য বিষয় ঃ ১। পূর্ববর্তী সভার কার্যবিবরণী পাঠ ও অনুমোদনঃ

 

 গত ১৭/০৬/২০১৩ তারিখে অনুষ্ঠিত সভার কার্যবিবরণী সভায় পাঠ করে শুনানো হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় তা উপস্থিত সদস্যদের সম্মতিক্রমে অনুমোদিত ও গৃহীত হয়।

 

           

আলোচ্য বিষয় ঃ ২। ষ্ট্যান্ডিং কমিটির সভার সুপারিশ সম্পর্কে আলোচনাঃ

 

            উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, প্রতি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে ষ্ট্যান্ডিং কমিটির সভা করে তার কার্যবিবরণী জমা দেয়ার কথা থাকলেও উপজেলা সমাজ কল্যাণ সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির কার্যবিবরণী ব্যতীত অন্য কোন স্থায়ী কমিটির সভার কার্যবিবরণী পাওয়া যায় নি; যা দুঃখজনক। এ বিষয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়।

 

সিদ্ধান্তঃ স্থায়ী কমিটি সভা করে তার সুপারিশ প্রতি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে দাখিল করবেন মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো। 

 

বাস্তবায়নেঃ স্থায়ী কমিটির সদস্য-সচিবগণ।

 

আলোচ্য বিষয় ঃ ৪। বিভিন্ন দপ্তরের বিভাগীয় কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনাঃ

 

১. উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা দপ্তরঃ

 

সভায় উপস্থিত উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তার প্রতিনিধি ডাঃ মোঃ আশরাফুল ইসলাম হরিণাকুন্ডু উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগে জুন / ২০১৩ মাসে সম্পাদিত বিভিন্ন কাজের বর্ণনা দেন। বিবরণ নিম্নরুপঃ

 

ইউজার ফি (রাজস্ব আয়)                 ঃ রুগী ভর্তি-৩৫৪/- টাকা, খরচ নাই। বহিঃ বিভাগ টিকিট-২১,০২১/-টাকা, খরচ নাই। কেবিন-৫,৭৫০/- টাকা, খরচ নাই। এক্স-রে, প্যাথলজি-৯,৯৭৫/- টাকা, খরচ নাই। এ্যম্বুলেন্স-২২,৩৩০/- টাকা, খরচ নাই। মোট-৫৯,৪৩০/- টাকা।

বহিঃ বিভাগ রোগী                                ঃ ৩,৬৭৪ জন

জরুরী বিভাগ রোগী                             ঃ ১৫৯ জন

অন্তঃ বিভাগ রোগী                               ঃ ৭৫৮ জন

মৃত রোগীর সংখ্যা                               ঃ ০১ টি

শয্যা ব্যবহারের হার                            ঃ ৮২%

প্রসব পূর্ব সেবা                                    ঃ ২৭ জন

প্রসব পরবর্তী সেবা                             ঃ ১১ জন

সিজারিয়ান অপারেশন                        ঃ ২৪ টি

স্বাভাবিক প্রসব                                    ঃ ৩৮ টি

কমিউনিটি ক্লিনিকের সংখ্যা                ঃ ২৩ টি

চিকিৎসাপ্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা                 ঃ ১২,৩৪০ জন

প্রতিবন্ধী সনদ প্রদান               ঃ ৭ টি

মোট জনবল (মঞ্জুরীকৃত)                     ঃ ১৬৪ টি

অপমৃত্যু                                              ঃ নাই

শুন্য পদ                                              ঃ ১ম শ্রেণী=২১ জন, ৩য় শ্রেণী=১৪ জন, ৪র্থ শ্রেণী=৭ জন।

হাসপাতালের জরুরী মোবাইল নম্বর   ঃ ০১৭৩০-৩২৪৫৮৮।

 

সিদ্ধান্তঃ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা দপ্তরের শূন্য পদগুলো পূরণের জন্য সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবর পত্র যোগাযোগ করতে হবে এবং সিজারিয়ান অপারেশন হাসপাতালে করা সহ স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নের জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, হরিণাকুন্ডু।

 

চলমান পাতা-২

 

পাতা নং-২

২. উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা দপ্তরঃ

 

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার তার দপ্তরের মাধ্যমে জুন/২০১৩ মাসে সম্পাদিত কাজের বর্ণনা দেন নিম্নরুপভাবে

 

            খাবার বড়িঃ পুরাতন-১৮,৬৪৬, নতুন-২০০, মোট-১৮,৮৪৬ ; কনডমঃ পুরাতন-১০৮৫, নতুন-৩৫, মোট-১১২০; ইনজেকটেবলঃ পুরাতন-৪,০৫৫; নতুন- ১০৪, মোট-৪১৫৯; আইইউডিঃ পুরাতন- ৪০০,  নতুন-১৩, মোট=৪১৩, ইমপ্লান্টঃ পুরাতন-১৯৭০, নতুন-৬৬, মোট-২,০৩৬, স্থায়ী পদ্ধতিঃ ( পুরুষ)ঃ পুরাতন-১৪১, নতুন-৩, মোট-১৪৪, (মহিলা)ঃ পুরাতন-৬৩৪৫, নতুন-২০ মোট-৬৩৬৫। এছাড়া দাপ্তরিক কার্যক্রম সন্তোষজনক।

 

সিদ্ধান্তঃ সকল স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার এবং পরিবার কল্যাণ

           পরিদর্শিকাগণকে কেন্দ্রে বসবাস পূর্বক সেবা প্রদান করতে হবে।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

৩. উপজেলা কৃষি দপ্তরঃ                      

 

            সভায় উপস্থিত উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জানান, চলতি আমন মৌসূমে আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ৯,৫০০ হেক্টর । এ পর্যন্ত অর্জিত হয়েছে ৩,০০০ হেক্টর। এই অঞ্চলে আমন মৌসূম নাবীতে হওয়ায় লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে এবং লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশী জমি আবাদ হবে বলে ধারনা করা যাচ্ছে। তিনি আরো জানান, আমন জমিতে বিভিন্ন প্রযুক্তি যেমন লাইন করে লাগানো, বিপিএইচ গ্যাপ দেওয়া, গুটি ইউরিয়ার ব্যবহার, চার্চিং ইত্যাদি ব্যবহার করা হচ্ছে। এছাড়া এ উপজেলার বৃক্ষমেলা এখনও সম্পন্ন হয় নি, আগষ্ট মাসের ২য় সপ্তাহে করার প্রস্ত্ততি চলছে।

 

সিদ্ধান্তঃ আমন জমিতে বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহারের উপকারীতা সম্পর্কে উপ-সহকারী কৃষি অফিসারগণ কৃষকদের ভালভাবে বোঝাবেন এবং প্রশিক্ষণ দিবেন। প্রয়োজনে ছোট আকারে প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করে উক্ত প্রদর্শনীতে বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রয়োগ করে দেখাতে হবে; যেন কৃষক দেখে শিখতে পারে। এছাড়া উপজেলার বৃক্ষমেলা আগষ্ট মাসের ৩য় সপ্তাহে উদ্বোধন করার সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা কৃষি অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

৪. উপজেলা মৎস্য দপ্তরঃ

 

            উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সভায় জানান, গত ২৮/০৭/২০১৩ তারিখে বাসুদেবপুর বিল নার্সারীতে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া মৎস্য অধিদপ্তরের আওতায় অভ্যন্তরীণ জলাভূমি এবং বর্ষা প্লাবিত ধানক্ষেত/প্লাবনভূমি/প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে পোনা অবমুক্ত করার নিমিত্তে এক লক্ষ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। উক্ত বরাদ্দকৃত অর্থ দিয়ে রুই জাতীয় মাছের পোনা অবমুক্ত কাজ দ্রুত সম্পাদনের জন্য কর্তৃপক্ষের জোর তাগিদ আছে। দাপ্তরিক কার্যক্রম ভালভাবে চলছে।

 

সিদ্ধান্তঃ বর্ষা প্লাবিত ধানক্ষেত/প্লাবনভূমি/প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে পোনা অবমুক্ত করার নিমিত্তে কমিটির সভা আহবান করে  বরাদ্দকৃত টাকা যথাযথভাবে ব্যয় করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ ১। উপজেলা মৎস্য অফিসার, হরিণাকুন্ডু ।

 

৫. উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরঃ

 

           

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সভায় জানান, তার দপ্তরের দৈনন্দিন কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে এবং ২০১২-২০১৩ অর্থ বছরে তার দপ্তরের মাধ্যমে নিম্নরুপভাবে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে।

 

চিকিৎসা প্রদান         ঃ ক) গবাদি পশু-১৮,৩৯৬

                             খ) হাঁস-মুরগী-৬৮,৯৩০

কৃত্রিম প্রজনন                ঃ ক) তরল সিমেন দ্বারা - ১,৯৮২

                               খ) গভীর হিমায়িত সিমেন দ্বারা -৪,৪৭৫

টীকা প্রদান         ঃ ক) গবাদী পশু- ১৬,৪৬০ মাত্রা

                               খ) হাঁস-মুরগী-১,৫৮,৪০০ মাত্রা

 

 

সিদ্ধান্তঃ ইউনিয়ন ভিত্তিক সভা করে হাঁস-মুরগী ও গবাদীপশু চাষে উদ্বুদ্ধকরণ ও চিকিৎসা ব্যবস্থা সম্পর্কে খামারীদের  সচেতন করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো। 

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা  প্রাণিসম্পদ অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

৬. ত্রাণ ও পুনর্বাসন সংক্রান্তঃ

 

            উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সভায় জানান, বিগত ২০১২-২০১৩ অর্থ বছরে বরাদ্দকৃত সকল প্রকার প্রকল্পের কাজ ৩০ জুন, ২০১৩ তারিখের মধ্যে যথাযথভাবে সম্পাদন করা হয়েছে। তবে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের আওতাধীন অত্র উপজেলায় ২ টি ব্রীজ/কালভার্ট নির্মাণের কাজ শেষ হলেও চূড়ান্ত কিস্তির বরাদ্দ না থাকায় বিল পরিশোধ করা সম্ভব হয় নি। তবে বর্তমানে উক্ত বরাদ্দ বাবদ ১৭,৭৭,৯৩৭/- টাকা পাওয়া গেছে। খুব শীঘ্র বিল পরিশোধ করা হবে। এছাড়া চলতি ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ১৩,১৯৭ টি ভিজিএফ কার্ডের অনুকুলে ১৩১.৯৭০ মেঃ টন চাউলের বরাদ্দ পাওয়া গেছে। বরাদ্দকৃত চাল ঈদের পূর্বে বিতরণের প্রস্ত্ততি চলছে। দাপ্তরিক কাজ-কর্ম সন্তোষজনক।

 

 

সিদ্ধান্তঃ অধিদপ্তরের সিদ্ধান্ত ও নির্দেশনার আলোকে খাদ্য শস্য ব্যয় করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো এবং প্রকল্প শেষে প্রতিবেদন প্রেরণের অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  ১। উপজেলা  প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

পাতা নং-৩

৭. উপজেলা সমাজসেবা দপ্তরঃ

 

            উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা সভায় জানান, প্রতিবন্ধিতা সনাক্তকরণ জরীপ কর্মসূচী-২০১৩ ভালভাবে চলছে। অত্র উপজেলার পৌরসভাসহ মোট ৯ টি ইউনিটের মধ্যে ইতোমধ্যে ৫ টি ইউনিটের কাজ শেষ হয়েছে। অবশিষ্ট ৪ টি ইউনিটের কাজ চলছে। এছাড়া ২০১২-১৩ অর্থ বছরের সকল প্রকার ভাতা বিতরণ কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। দাপ্তরিক কার্যক্রম ভালভাবে চলছে।

 

 

 

সিদ্ধান্তঃ জরীপ কার্যক্রম সম্পন্ন করে প্রতিবেদন সভায় উপস্থাপনের জন্য অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  ১। উপজেলা  সমাজসেবা অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

 

৮. উপজেলা শিক্ষা দপ্তরঃ    

 

            উপজেলা শিক্ষা অফিসার (ভাঃ) জানান, ১১৭ টি বিদ্যালয়ে উপবৃত্তি বিতরণ সুষ্ঠুভাবে হয়েছে। এস.এম.সি গঠন প্রক্রিয়া চলছে। ঝুyুকপূর্ণ বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ আছে। তবে বিকল্প ব্যবস্থায় পাঠদান চলছে। দাপ্তরিক কার্যক্রম সন্তোষজনক। উল্লেখযোগ্য কোন সমস্যা নাই।

 

সিদ্ধান্তঃ উপবৃত্তি প্রদান ও এস.এম.সি গঠনে সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা শিক্ষা অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

৯. উপজেলা মহিলা বিষয়ক দপ্তরঃ

 

            সভায় উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা উপস্থিত না থাকায় তার দপ্তর সম্পর্কে কোন আলোচনা করা গেল না।

              

১০. যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরঃ

 

            সভায় উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা জানান, ২০১২-২০১৩ অর্থ বছরে আত্মকর্মসংস্থান প্রকল্পে প্রশিক্ষণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৪০ জন। প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে ২৪২ জনকে। ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে এখনও বরাদ্দ আসে নি। বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে প্রশিক্ষণ শুরু করা হবে। যুব ঋণ বিতরণ ও আদায় সন্তোষজনক। ১৫ আগষ্ট জাতীয় কর্মসূচীতে যুব ঋণ বিতরণ করা হবে। খেলাপী ঋণ আদায়ের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

সিদ্ধান্তঃ লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী প্রশিক্ষণ, যুব ঋণ বিতরণ এবং আদায়ের ব্যাপারে সচেষ্ট থেকে কার্যক্রম পরিচালনার সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা, হরিণাকুন্ডু।

 

 

 

 

১১. উপ-সহকারী প্রকৌশল (জনস্বাস্থ্য) দপ্তরঃ

 

            উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য) সভায় জানান, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে ২০১২-১৩ অর্থ বছরে ২৫ টি গভীর নলকূপ এবং ৩০ টি অগভীর নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে। চলতি ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের বরাদ্দ সেপ্টেম্বর/১৩ এর মধ্যে পাওয়া যাবে। এ উপজেলার পিইডিপি-৩ প্রকল্পের আওতায় ২৯ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গভীর নলকূপ স্থাপন করা হবে। সেপ্টেম্বর/১৩ এর মধ্যে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে এবং তালিকা শিক্ষা অফিসে দেয়া হয়েছে। এছাড়া দাপ্তরিক কাজে কোন সমস্যা নেই। 

 

 

সিদ্ধান্তঃ নলকুপ স্থাপন কাজের পূর্বে সংশ্লিষ্ট ইউ. পি চেয়ারম্যানদের সাথে বিষয়টি আলোচনা করে নেয়ার জন্য উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য)কে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য), হরিণাকুন্ডু।

 

১২. উপজেলা সমবায় দপ্তরঃ

 

            উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা জানান, অত্র দপ্তরের অডিট কার্যক্রম লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী সম্পাদন করা হচ্ছে। আশ্রয়ন প্রকল্প (ফেইস-২) এর ঋণ আদায়ের অগ্রগতি ১০০%। কিন্তু সম্প্রতি কিছু এন.জি.ও আশ্রয়ন প্রকল্পে গোপনে ঋণ কার্যক্রম চালাচ্ছে। যদিও আশ্রয়ন প্রকল্প নীতিমালায় সরকারী ঋণ ব্যতীত অন্য কোন প্রকার ঋণ কার্যক্রম পরিচালনা করা নিষেধ। এছাড়া দাপ্তরিক কাজ ভালভাবে চলছে। 

 

সিদ্ধান্তঃ আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকায় ঋণ কার্যক্রম তদারকি করার জন্য পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা আশ্রয়ন প্রকল্প (ফেইস-২), টাস্ক ফোর্স কমিটি, হরিণাকুন্ডু।

 

 

১৩. বি.আর.ডি.বিঃ

           

            উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা, বিআরডিবি জানান, বিগত বছরে পজীপ প্রকল্পে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২০০.০০ লক্ষ টাকা। অর্জিত হয়েছে ২০৭.৫৯ লক্ষ টাকা। চলতি অর্থ বছরে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ২০০.০০ লক্ষ টাকা। বর্তমান মাসে বিতরণ হয়েছে ১৮.৮৩ লক্ষ টাকা। ঋণ বিতরণ অব্যাহত আছে। গত আর্থিক বছরে ঋণ আদায় হয়েছে ২২২.৮০ লক্ষ টাকা। খেলাপী ঋণের পরিমাণ ২০.৪৫ লক্ষ টাকা। আদায়ের হার ৯৯%। ঋণ বিতরণ এবং আদায় অব্যহত আছে। দাপ্তরিক কাজে তেমন কোন সমস্যা নাই।

 

চলমান পাতা-৪

 

পাতা নং-৪

 

পল্লী প্রগতি প্রকল্পঃ পল্লী প্রগতি প্রকল্পে বিগত বছরে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৪.০০ লক্ষ টাকা। অর্জিত হয়েছে ১৮.১১ লক্ষ টাকা। বিতরণের হার ৭৫%। ঋণ বিতরণ অব্যাহত আছে। গত আর্থিক বছরে ঋণ আদায় হয়েছে ১৫.৪০ লক্ষ টাকা। আদায়ের হার ৯৭%। বর্তমানে খেলাপী ঋণের পরিমান ৩.৩০ লক্ষ টাকা। খেলাপী ঋণ আদায়ে সহযোগিতা করার জন্য তিনি সম্মানিত কাপাশহাটিয়া ইউ. পি চেয়ারম্যান সহ উপস্থিত সকলের সহযোগীতা কামনা করেন। 

 

মুক্তিযোদ্ধা প্রকল্পঃ ঋণ বিতরণ অব্যাহত আছে। খেলাপী ঋণ আদায়ের ব্যাপারে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারের সহযোগীতা কামনা করেন।

 

একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্পঃ

 

ক) সমিতি গঠন = ৩৬ টি।

খ) সদস্য সংখ্যা =২১৬০

গ) সঞ্চয় আদায়=৯২.২৩ লক্ষ।

ঘ) ঋণ বিতরণ=১৫৯.৪৮ লক্ষ।

ঙ) ঋণ আদায়=৩১.০৮ লক্ষ।

চ) সঞ্চয় জমাকারী =২১৪৬ জন।

 

সিদ্ধান্তঃ  ঋণ বিতরণ ও আদায় জোড়দার করার জন্য উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা, বিআরডিবিকে পরামর্শ প্রদান করা হলো এবং খেলাপী ঋণ আদায়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। একটি বাড়ী একাট খামার প্রকল্পের মাসিক সঞ্চয় আদায় ও ঋণের কিস্তি আদায়ে তৎপর হওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা, বিআরডিবি, হরিণাকুন্ডু।

 

১৪. উপজেলা খাদ্য দপ্তরঃ

 

            উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সভায় জানান, বর্তমানে চাল/ধান সংগ্রহ চলছে। বাজার অনুকুলে না থাকায় ধান সংগ্রহ সম্ভব হয় নি। তবে আজ পর্যন্ত ৮২৩.০০০ মেঃ টন চাল সংগ্রহ করা হয়েছে। দপ্তরের অন্যান্য কার্যক্রম সঠিকভাবে চলছে। উল্লেখযোগ্য কোন সমস্যা নাই।

সিদ্ধান্তঃ সরকারী নীতিমালা মোতাবেক ধান/চাল সংগ্রহ করার জন্য উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রককে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক, হরিণাকুন্ডু।

 

১৫. উপজেলা আনসার ও ভিডিপি দপ্তরঃ

 

            উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা জানান, উপজেলাধীন ৮ টি ইউনিয়নে আনসার ভিডিপি প্লাটুন হালনাগাদ করণের কাজ চলছে। আগামী মাস হতে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ শুরু হবে। প্রয়োজন মাফিক প্রশিক্ষণার্থী প্রশিক্ষণে প্রেরণ করা হবে।  দপ্তরের সার্বিক কার্যাবলী ভালভাবে চলছে। উল্লেখযোগ্য কোন সমস্যা নেই।

 

সিদ্ধান্তঃ আনসার ভিডিপি প্লাটুন হালনাগাদ করণের কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে করার জন্য উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তাকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা, হরিণাকুন্ডু।

 

 

১৬. উপজেলা প্রকৌশল দপ্তরঃ 

 

 

            উপজেলা প্রকৌশলী সভায় জানান, বিগত ২০১২-১৩ অর্থ বছরে বরাদ্দকৃত এডিপি’র অর্থে গৃহীত প্রকল্প সমূহের কাজ সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে সম্পাদন করা হয়েছে এবং পিইডিপি-৩ এর আওতায় ২ টি স্কুলের কাজও ভালভাবে সম্পাদন করা হয়েছে। কাজের গুনগত মান সন্তোষজনক।

 

সিদ্ধান্তঃ  উন্নয়নমূলক সকল কাজ নিবিঢ়ভাবে তদারকী করার জন্য উপজেলা প্রকৌশলীকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  উপজেলা প্রকৌশলী, হরিণাকুন্ডু।

 

১৭. উপজেলা পরিসংখ্যান দপ্তরঃ

 

            উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা সভায় অনুপস্থিত  থাকায় তাঁর দপ্তর সম্পর্কে কোন আলোচনা করা গেল না।

 

১৮. উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা দপ্তরঃ

 

            উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সভায় জানান, স্কুল কলেজ বর্তমান বন্ধ আছে। আগামী ১২ আগষ্ট খুলবে। ডিগ্রী পর্যায় পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি চালু হতে যাচ্ছে। খুব শীঘ্র এই প্রকল্প চালু হবে।

 

সিদ্ধান্তঃ স্কুলগুলোতে গাইড/নোট বই বন্ধ করার জন্য জোরালো পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে পরামর্শ প্রদান করা হলো। 

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

 

চলমান পাতা-৫

পাতা নং-৫

১৯. উপজেলা বন বিভাগঃ

 

            ফরেষ্টার, উপজেলা বন বিভাগ সভায় উপস্থিত না থাকায় বন বিভাগ সম্পর্কে কোন আলোচনা করা গেল না।

 

আলোচ্য বিষয় ৫ঃ বিবিধঃ

 

ক) চেয়ারম্যান, তাহেরহুদা ইউ. পি বলেন, তার ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে আসন ব্যবস্থার সংকট নিরসনকল্পে নুন্যতম একটি কক্ষ নির্মাণ করা খুবই জরুরী। তাই যে কোন তহবিল হতে একটি কক্ষ নির্মাণ করার জন্য সভায় প্রস্তাব করেন। এছাড়া সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে এ উপজেলার সীমানা নির্ধারণেরও প্রস্তাব করেন। বিষয়টি নিয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়।

 

সিদ্ধান্তঃ বিস্তারিত আলোচনান্তে পারমথুরাপুর, আমতলা, তৈলটুপি ও রিশখালী সীমানা পিলার নির্মাণ করার জন্য একটি প্রাক্কলন প্রস্ত্তত পূর্বক সভায় উপস্থানের জন্য উপজেলা প্রকৌশলী, হরিনাকুন্ডুকে অনুরোধ জানানো হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা প্রকৌশলী, হরিনাকুন্ডু।

 

খ) চেয়ারম্যান, জোড়াদহ ইউ. পি আন্তঃ উপজেলা ফুটবল টুর্ণামেন্ট প্রতিযোগিতা করার প্রস্তাব করেন। বিষয়টি নিয়ে সভায়    বিস্তারিত আলোচনা হয়।

 

সিদ্ধান্তঃ বিস্তারিত আলোচনান্তে সভায় উপস্থিত সকলে একমত পোষন করেন, তবে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার মিটিং আহবান করে এ বিষয়টি চূড়ান্ত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা।

  

 

            অতঃপর আর কোন আলোচনা না থাকায় উপজেলা পরিষদের সকল কর্মকর্তাদের সময়মত অফিসে উপস্থিত ও জনগণের প্রয়োজনীয় সেবা প্রদানের অনুরোধ জানিয়ে উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপনপূর্বক সভাপতি সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

 

 

                                                                                                           (মোঃ সাজেদুল ইসলাম)

                                                                                                              প্যানেল চেয়ারম্যান

                                                                                                                উপজেলা পরিষদ

                                                                                                             হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ ।

 

স্মারক নংঃ ০৫.৪৪.৪৪১৪.০০১.০৪.০১০.১৩-৫৭৩(৪০)                                         তারিখ : ২৯/০৭/২০১৩ খ্রিঃ।

 

অনুলিপি বিতরণ : সদয় অবগতি/অবগতি ও কার্যার্থে -

 

১। মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য ৮২, ঝিনাইদহ-২।

২। জেলা প্রশাসক, ঝিনাইদহ।

৩। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ।

৪। জনাব ........................................................

 

          (মোঃ আবুল বশার)

          মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা

           হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ।

উপজেলা পরিষদ সাধারণ সভার কার্যবিবরণীঃ

জুলাই-২০১৩ মাস

অধিবেশন নংঃ ৮/২০১৩

 

সভাপতি     ঃ             মোঃ সাজেদুল ইসলাম

                        প্যানেল চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ

                        হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ।

 

সভার তারিখঃ ২৯-০৭-২০১৩ খ্রিঃ।

সভার সময়  ঃ      বেলাঃ ১১.৩০ টা

সভার স্থান   ঃ     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ।

 

সভায় উপস্থিতিঃ

 

সভায় উপস্থিত ও অনুপস্থিত সভ্যগণের নাম পরিশিষ্ট ‘‘ক’’ তে উল্লেখ করা হ’ল।

 

সভার প্রারম্ভে সভাপতি উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানিয়ে সভা শুরু করেন। তিনি সভাটি পরিচালনার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার, হরিণাকুন্ডুকে দায়িত্ব প্রদান করেন।

 

আলোচ্য বিষয় ঃ ১। পূর্ববর্তী সভার কার্যবিবরণী পাঠ ও অনুমোদনঃ

 

 গত ১৭/০৬/২০১৩ তারিখে অনুষ্ঠিত সভার কার্যবিবরণী সভায় পাঠ করে শুনানো হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় তা উপস্থিত সদস্যদের সম্মতিক্রমে অনুমোদিত ও গৃহীত হয়।

 

           

আলোচ্য বিষয় ঃ ২। ষ্ট্যান্ডিং কমিটির সভার সুপারিশ সম্পর্কে আলোচনাঃ

 

            উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, প্রতি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে ষ্ট্যান্ডিং কমিটির সভা করে তার কার্যবিবরণী জমা দেয়ার কথা থাকলেও উপজেলা সমাজ কল্যাণ সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির কার্যবিবরণী ব্যতীত অন্য কোন স্থায়ী কমিটির সভার কার্যবিবরণী পাওয়া যায় নি; যা দুঃখজনক। এ বিষয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়।

 

সিদ্ধান্তঃ স্থায়ী কমিটি সভা করে তার সুপারিশ প্রতি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে দাখিল করবেন মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো। 

 

বাস্তবায়নেঃ স্থায়ী কমিটির সদস্য-সচিবগণ।

 

আলোচ্য বিষয় ঃ ৪। বিভিন্ন দপ্তরের বিভাগীয় কার্যক্রম সম্পর্কে আলোচনাঃ

 

১. উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা দপ্তরঃ

 

সভায় উপস্থিত উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তার প্রতিনিধি ডাঃ মোঃ আশরাফুল ইসলাম হরিণাকুন্ডু উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগে জুন / ২০১৩ মাসে সম্পাদিত বিভিন্ন কাজের বর্ণনা দেন। বিবরণ নিম্নরুপঃ

 

ইউজার ফি (রাজস্ব আয়)                 ঃ রুগী ভর্তি-৩৫৪/- টাকা, খরচ নাই। বহিঃ বিভাগ টিকিট-২১,০২১/-টাকা, খরচ নাই। কেবিন-৫,৭৫০/- টাকা, খরচ নাই। এক্স-রে, প্যাথলজি-৯,৯৭৫/- টাকা, খরচ নাই। এ্যম্বুলেন্স-২২,৩৩০/- টাকা, খরচ নাই। মোট-৫৯,৪৩০/- টাকা।

বহিঃ বিভাগ রোগী                                ঃ ৩,৬৭৪ জন

জরুরী বিভাগ রোগী                             ঃ ১৫৯ জন

অন্তঃ বিভাগ রোগী                               ঃ ৭৫৮ জন

মৃত রোগীর সংখ্যা                               ঃ ০১ টি

শয্যা ব্যবহারের হার                            ঃ ৮২%

প্রসব পূর্ব সেবা                                    ঃ ২৭ জন

প্রসব পরবর্তী সেবা                             ঃ ১১ জন

সিজারিয়ান অপারেশন                        ঃ ২৪ টি

স্বাভাবিক প্রসব                                    ঃ ৩৮ টি

কমিউনিটি ক্লিনিকের সংখ্যা                ঃ ২৩ টি

চিকিৎসাপ্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা                 ঃ ১২,৩৪০ জন

প্রতিবন্ধী সনদ প্রদান               ঃ ৭ টি

মোট জনবল (মঞ্জুরীকৃত)                     ঃ ১৬৪ টি

অপমৃত্যু                                              ঃ নাই

শুন্য পদ                                              ঃ ১ম শ্রেণী=২১ জন, ৩য় শ্রেণী=১৪ জন, ৪র্থ শ্রেণী=৭ জন।

হাসপাতালের জরুরী মোবাইল নম্বর   ঃ ০১৭৩০-৩২৪৫৮৮।

 

সিদ্ধান্তঃ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা দপ্তরের শূন্য পদগুলো পূরণের জন্য সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবর পত্র যোগাযোগ করতে হবে এবং সিজারিয়ান অপারেশন হাসপাতালে করা সহ স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নের জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, হরিণাকুন্ডু।

 

চলমান পাতা-২

 

পাতা নং-২

২. উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা দপ্তরঃ

 

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার তার দপ্তরের মাধ্যমে জুন/২০১৩ মাসে সম্পাদিত কাজের বর্ণনা দেন নিম্নরুপভাবে

 

            খাবার বড়িঃ পুরাতন-১৮,৬৪৬, নতুন-২০০, মোট-১৮,৮৪৬ ; কনডমঃ পুরাতন-১০৮৫, নতুন-৩৫, মোট-১১২০; ইনজেকটেবলঃ পুরাতন-৪,০৫৫; নতুন- ১০৪, মোট-৪১৫৯; আইইউডিঃ পুরাতন- ৪০০,  নতুন-১৩, মোট=৪১৩, ইমপ্লান্টঃ পুরাতন-১৯৭০, নতুন-৬৬, মোট-২,০৩৬, স্থায়ী পদ্ধতিঃ ( পুরুষ)ঃ পুরাতন-১৪১, নতুন-৩, মোট-১৪৪, (মহিলা)ঃ পুরাতন-৬৩৪৫, নতুন-২০ মোট-৬৩৬৫। এছাড়া দাপ্তরিক কার্যক্রম সন্তোষজনক।

 

সিদ্ধান্তঃ সকল স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার এবং পরিবার কল্যাণ

           পরিদর্শিকাগণকে কেন্দ্রে বসবাস পূর্বক সেবা প্রদান করতে হবে।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

৩. উপজেলা কৃষি দপ্তরঃ                      

 

            সভায় উপস্থিত উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জানান, চলতি আমন মৌসূমে আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ৯,৫০০ হেক্টর । এ পর্যন্ত অর্জিত হয়েছে ৩,০০০ হেক্টর। এই অঞ্চলে আমন মৌসূম নাবীতে হওয়ায় লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে এবং লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশী জমি আবাদ হবে বলে ধারনা করা যাচ্ছে। তিনি আরো জানান, আমন জমিতে বিভিন্ন প্রযুক্তি যেমন লাইন করে লাগানো, বিপিএইচ গ্যাপ দেওয়া, গুটি ইউরিয়ার ব্যবহার, চার্চিং ইত্যাদি ব্যবহার করা হচ্ছে। এছাড়া এ উপজেলার বৃক্ষমেলা এখনও সম্পন্ন হয় নি, আগষ্ট মাসের ২য় সপ্তাহে করার প্রস্ত্ততি চলছে।

 

সিদ্ধান্তঃ আমন জমিতে বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহারের উপকারীতা সম্পর্কে উপ-সহকারী কৃষি অফিসারগণ কৃষকদের ভালভাবে বোঝাবেন এবং প্রশিক্ষণ দিবেন। প্রয়োজনে ছোট আকারে প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করে উক্ত প্রদর্শনীতে বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রয়োগ করে দেখাতে হবে; যেন কৃষক দেখে শিখতে পারে। এছাড়া উপজেলার বৃক্ষমেলা আগষ্ট মাসের ৩য় সপ্তাহে উদ্বোধন করার সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা কৃষি অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

৪. উপজেলা মৎস্য দপ্তরঃ

 

            উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সভায় জানান, গত ২৮/০৭/২০১৩ তারিখে বাসুদেবপুর বিল নার্সারীতে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া মৎস্য অধিদপ্তরের আওতায় অভ্যন্তরীণ জলাভূমি এবং বর্ষা প্লাবিত ধানক্ষেত/প্লাবনভূমি/প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে পোনা অবমুক্ত করার নিমিত্তে এক লক্ষ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। উক্ত বরাদ্দকৃত অর্থ দিয়ে রুই জাতীয় মাছের পোনা অবমুক্ত কাজ দ্রুত সম্পাদনের জন্য কর্তৃপক্ষের জোর তাগিদ আছে। দাপ্তরিক কার্যক্রম ভালভাবে চলছে।

 

সিদ্ধান্তঃ বর্ষা প্লাবিত ধানক্ষেত/প্লাবনভূমি/প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে পোনা অবমুক্ত করার নিমিত্তে কমিটির সভা আহবান করে  বরাদ্দকৃত টাকা যথাযথভাবে ব্যয় করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ ১। উপজেলা মৎস্য অফিসার, হরিণাকুন্ডু ।

 

৫. উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তরঃ

 

           

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সভায় জানান, তার দপ্তরের দৈনন্দিন কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে এবং ২০১২-২০১৩ অর্থ বছরে তার দপ্তরের মাধ্যমে নিম্নরুপভাবে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে।

 

চিকিৎসা প্রদান         ঃ ক) গবাদি পশু-১৮,৩৯৬

                             খ) হাঁস-মুরগী-৬৮,৯৩০

কৃত্রিম প্রজনন                ঃ ক) তরল সিমেন দ্বারা - ১,৯৮২

                               খ) গভীর হিমায়িত সিমেন দ্বারা -৪,৪৭৫

টীকা প্রদান         ঃ ক) গবাদী পশু- ১৬,৪৬০ মাত্রা

                               খ) হাঁস-মুরগী-১,৫৮,৪০০ মাত্রা

 

 

সিদ্ধান্তঃ ইউনিয়ন ভিত্তিক সভা করে হাঁস-মুরগী ও গবাদীপশু চাষে উদ্বুদ্ধকরণ ও চিকিৎসা ব্যবস্থা সম্পর্কে খামারীদের  সচেতন করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো। 

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা  প্রাণিসম্পদ অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

৬. ত্রাণ ও পুনর্বাসন সংক্রান্তঃ

 

            উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সভায় জানান, বিগত ২০১২-২০১৩ অর্থ বছরে বরাদ্দকৃত সকল প্রকার প্রকল্পের কাজ ৩০ জুন, ২০১৩ তারিখের মধ্যে যথাযথভাবে সম্পাদন করা হয়েছে। তবে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের আওতাধীন অত্র উপজেলায় ২ টি ব্রীজ/কালভার্ট নির্মাণের কাজ শেষ হলেও চূড়ান্ত কিস্তির বরাদ্দ না থাকায় বিল পরিশোধ করা সম্ভব হয় নি। তবে বর্তমানে উক্ত বরাদ্দ বাবদ ১৭,৭৭,৯৩৭/- টাকা পাওয়া গেছে। খুব শীঘ্র বিল পরিশোধ করা হবে। এছাড়া চলতি ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ১৩,১৯৭ টি ভিজিএফ কার্ডের অনুকুলে ১৩১.৯৭০ মেঃ টন চাউলের বরাদ্দ পাওয়া গেছে। বরাদ্দকৃত চাল ঈদের পূর্বে বিতরণের প্রস্ত্ততি চলছে। দাপ্তরিক কাজ-কর্ম সন্তোষজনক।

 

 

সিদ্ধান্তঃ অধিদপ্তরের সিদ্ধান্ত ও নির্দেশনার আলোকে খাদ্য শস্য ব্যয় করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো এবং প্রকল্প শেষে প্রতিবেদন প্রেরণের অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  ১। উপজেলা  প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

পাতা নং-৩

৭. উপজেলা সমাজসেবা দপ্তরঃ

 

            উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা সভায় জানান, প্রতিবন্ধিতা সনাক্তকরণ জরীপ কর্মসূচী-২০১৩ ভালভাবে চলছে। অত্র উপজেলার পৌরসভাসহ মোট ৯ টি ইউনিটের মধ্যে ইতোমধ্যে ৫ টি ইউনিটের কাজ শেষ হয়েছে। অবশিষ্ট ৪ টি ইউনিটের কাজ চলছে। এছাড়া ২০১২-১৩ অর্থ বছরের সকল প্রকার ভাতা বিতরণ কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। দাপ্তরিক কার্যক্রম ভালভাবে চলছে।

 

 

 

সিদ্ধান্তঃ জরীপ কার্যক্রম সম্পন্ন করে প্রতিবেদন সভায় উপস্থাপনের জন্য অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  ১। উপজেলা  সমাজসেবা অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

 

৮. উপজেলা শিক্ষা দপ্তরঃ    

 

            উপজেলা শিক্ষা অফিসার (ভাঃ) জানান, ১১৭ টি বিদ্যালয়ে উপবৃত্তি বিতরণ সুষ্ঠুভাবে হয়েছে। এস.এম.সি গঠন প্রক্রিয়া চলছে। ঝুyুকপূর্ণ বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ আছে। তবে বিকল্প ব্যবস্থায় পাঠদান চলছে। দাপ্তরিক কার্যক্রম সন্তোষজনক। উল্লেখযোগ্য কোন সমস্যা নাই।

 

সিদ্ধান্তঃ উপবৃত্তি প্রদান ও এস.এম.সি গঠনে সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা শিক্ষা অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

৯. উপজেলা মহিলা বিষয়ক দপ্তরঃ

 

            সভায় উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা উপস্থিত না থাকায় তার দপ্তর সম্পর্কে কোন আলোচনা করা গেল না।

              

১০. যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরঃ

 

            সভায় উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা জানান, ২০১২-২০১৩ অর্থ বছরে আত্মকর্মসংস্থান প্রকল্পে প্রশিক্ষণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৪০ জন। প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে ২৪২ জনকে। ২০১৩-১৪ অর্থ বছরে এখনও বরাদ্দ আসে নি। বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে প্রশিক্ষণ শুরু করা হবে। যুব ঋণ বিতরণ ও আদায় সন্তোষজনক। ১৫ আগষ্ট জাতীয় কর্মসূচীতে যুব ঋণ বিতরণ করা হবে। খেলাপী ঋণ আদায়ের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

সিদ্ধান্তঃ লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী প্রশিক্ষণ, যুব ঋণ বিতরণ এবং আদায়ের ব্যাপারে সচেষ্ট থেকে কার্যক্রম পরিচালনার সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা, হরিণাকুন্ডু।

 

 

 

 

১১. উপ-সহকারী প্রকৌশল (জনস্বাস্থ্য) দপ্তরঃ

 

            উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য) সভায় জানান, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে ২০১২-১৩ অর্থ বছরে ২৫ টি গভীর নলকূপ এবং ৩০ টি অগভীর নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে। চলতি ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের বরাদ্দ সেপ্টেম্বর/১৩ এর মধ্যে পাওয়া যাবে। এ উপজেলার পিইডিপি-৩ প্রকল্পের আওতায় ২৯ টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গভীর নলকূপ স্থাপন করা হবে। সেপ্টেম্বর/১৩ এর মধ্যে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে এবং তালিকা শিক্ষা অফিসে দেয়া হয়েছে। এছাড়া দাপ্তরিক কাজে কোন সমস্যা নেই। 

 

 

সিদ্ধান্তঃ নলকুপ স্থাপন কাজের পূর্বে সংশ্লিষ্ট ইউ. পি চেয়ারম্যানদের সাথে বিষয়টি আলোচনা করে নেয়ার জন্য উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য)কে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য), হরিণাকুন্ডু।

 

১২. উপজেলা সমবায় দপ্তরঃ

 

            উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা জানান, অত্র দপ্তরের অডিট কার্যক্রম লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী সম্পাদন করা হচ্ছে। আশ্রয়ন প্রকল্প (ফেইস-২) এর ঋণ আদায়ের অগ্রগতি ১০০%। কিন্তু সম্প্রতি কিছু এন.জি.ও আশ্রয়ন প্রকল্পে গোপনে ঋণ কার্যক্রম চালাচ্ছে। যদিও আশ্রয়ন প্রকল্প নীতিমালায় সরকারী ঋণ ব্যতীত অন্য কোন প্রকার ঋণ কার্যক্রম পরিচালনা করা নিষেধ। এছাড়া দাপ্তরিক কাজ ভালভাবে চলছে। 

 

সিদ্ধান্তঃ আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকায় ঋণ কার্যক্রম তদারকি করার জন্য পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা আশ্রয়ন প্রকল্প (ফেইস-২), টাস্ক ফোর্স কমিটি, হরিণাকুন্ডু।

 

 

১৩. বি.আর.ডি.বিঃ

           

            উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা, বিআরডিবি জানান, বিগত বছরে পজীপ প্রকল্পে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২০০.০০ লক্ষ টাকা। অর্জিত হয়েছে ২০৭.৫৯ লক্ষ টাকা। চলতি অর্থ বছরে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ২০০.০০ লক্ষ টাকা। বর্তমান মাসে বিতরণ হয়েছে ১৮.৮৩ লক্ষ টাকা। ঋণ বিতরণ অব্যাহত আছে। গত আর্থিক বছরে ঋণ আদায় হয়েছে ২২২.৮০ লক্ষ টাকা। খেলাপী ঋণের পরিমাণ ২০.৪৫ লক্ষ টাকা। আদায়ের হার ৯৯%। ঋণ বিতরণ এবং আদায় অব্যহত আছে। দাপ্তরিক কাজে তেমন কোন সমস্যা নাই।

 

চলমান পাতা-৪

 

পাতা নং-৪

 

পল্লী প্রগতি প্রকল্পঃ পল্লী প্রগতি প্রকল্পে বিগত বছরে ঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৪.০০ লক্ষ টাকা। অর্জিত হয়েছে ১৮.১১ লক্ষ টাকা। বিতরণের হার ৭৫%। ঋণ বিতরণ অব্যাহত আছে। গত আর্থিক বছরে ঋণ আদায় হয়েছে ১৫.৪০ লক্ষ টাকা। আদায়ের হার ৯৭%। বর্তমানে খেলাপী ঋণের পরিমান ৩.৩০ লক্ষ টাকা। খেলাপী ঋণ আদায়ে সহযোগিতা করার জন্য তিনি সম্মানিত কাপাশহাটিয়া ইউ. পি চেয়ারম্যান সহ উপস্থিত সকলের সহযোগীতা কামনা করেন। 

 

মুক্তিযোদ্ধা প্রকল্পঃ ঋণ বিতরণ অব্যাহত আছে। খেলাপী ঋণ আদায়ের ব্যাপারে মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারের সহযোগীতা কামনা করেন।

 

একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্পঃ

 

ক) সমিতি গঠন = ৩৬ টি।

খ) সদস্য সংখ্যা =২১৬০

গ) সঞ্চয় আদায়=৯২.২৩ লক্ষ।

ঘ) ঋণ বিতরণ=১৫৯.৪৮ লক্ষ।

ঙ) ঋণ আদায়=৩১.০৮ লক্ষ।

চ) সঞ্চয় জমাকারী =২১৪৬ জন।

 

সিদ্ধান্তঃ  ঋণ বিতরণ ও আদায় জোড়দার করার জন্য উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা, বিআরডিবিকে পরামর্শ প্রদান করা হলো এবং খেলাপী ঋণ আদায়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। একটি বাড়ী একাট খামার প্রকল্পের মাসিক সঞ্চয় আদায় ও ঋণের কিস্তি আদায়ে তৎপর হওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা, বিআরডিবি, হরিণাকুন্ডু।

 

১৪. উপজেলা খাদ্য দপ্তরঃ

 

            উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সভায় জানান, বর্তমানে চাল/ধান সংগ্রহ চলছে। বাজার অনুকুলে না থাকায় ধান সংগ্রহ সম্ভব হয় নি। তবে আজ পর্যন্ত ৮২৩.০০০ মেঃ টন চাল সংগ্রহ করা হয়েছে। দপ্তরের অন্যান্য কার্যক্রম সঠিকভাবে চলছে। উল্লেখযোগ্য কোন সমস্যা নাই।

সিদ্ধান্তঃ সরকারী নীতিমালা মোতাবেক ধান/চাল সংগ্রহ করার জন্য উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রককে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক, হরিণাকুন্ডু।

 

১৫. উপজেলা আনসার ও ভিডিপি দপ্তরঃ

 

            উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা জানান, উপজেলাধীন ৮ টি ইউনিয়নে আনসার ভিডিপি প্লাটুন হালনাগাদ করণের কাজ চলছে। আগামী মাস হতে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ শুরু হবে। প্রয়োজন মাফিক প্রশিক্ষণার্থী প্রশিক্ষণে প্রেরণ করা হবে।  দপ্তরের সার্বিক কার্যাবলী ভালভাবে চলছে। উল্লেখযোগ্য কোন সমস্যা নেই।

 

সিদ্ধান্তঃ আনসার ভিডিপি প্লাটুন হালনাগাদ করণের কাজ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে করার জন্য উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তাকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা, হরিণাকুন্ডু।

 

 

১৬. উপজেলা প্রকৌশল দপ্তরঃ 

 

 

            উপজেলা প্রকৌশলী সভায় জানান, বিগত ২০১২-১৩ অর্থ বছরে বরাদ্দকৃত এডিপি’র অর্থে গৃহীত প্রকল্প সমূহের কাজ সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে সম্পাদন করা হয়েছে এবং পিইডিপি-৩ এর আওতায় ২ টি স্কুলের কাজও ভালভাবে সম্পাদন করা হয়েছে। কাজের গুনগত মান সন্তোষজনক।

 

সিদ্ধান্তঃ  উন্নয়নমূলক সকল কাজ নিবিঢ়ভাবে তদারকী করার জন্য উপজেলা প্রকৌশলীকে পরামর্শ প্রদান করা হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ  উপজেলা প্রকৌশলী, হরিণাকুন্ডু।

 

১৭. উপজেলা পরিসংখ্যান দপ্তরঃ

 

            উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা সভায় অনুপস্থিত  থাকায় তাঁর দপ্তর সম্পর্কে কোন আলোচনা করা গেল না।

 

১৮. উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা দপ্তরঃ

 

            উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সভায় জানান, স্কুল কলেজ বর্তমান বন্ধ আছে। আগামী ১২ আগষ্ট খুলবে। ডিগ্রী পর্যায় পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি চালু হতে যাচ্ছে। খুব শীঘ্র এই প্রকল্প চালু হবে।

 

সিদ্ধান্তঃ স্কুলগুলোতে গাইড/নোট বই বন্ধ করার জন্য জোরালো পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে পরামর্শ প্রদান করা হলো। 

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, হরিণাকুন্ডু।

 

 

চলমান পাতা-৫

পাতা নং-৫

১৯. উপজেলা বন বিভাগঃ

 

            ফরেষ্টার, উপজেলা বন বিভাগ সভায় উপস্থিত না থাকায় বন বিভাগ সম্পর্কে কোন আলোচনা করা গেল না।

 

আলোচ্য বিষয় ৫ঃ বিবিধঃ

 

ক) চেয়ারম্যান, তাহেরহুদা ইউ. পি বলেন, তার ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে আসন ব্যবস্থার সংকট নিরসনকল্পে নুন্যতম একটি কক্ষ নির্মাণ করা খুবই জরুরী। তাই যে কোন তহবিল হতে একটি কক্ষ নির্মাণ করার জন্য সভায় প্রস্তাব করেন। এছাড়া সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে এ উপজেলার সীমানা নির্ধারণেরও প্রস্তাব করেন। বিষয়টি নিয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়।

 

সিদ্ধান্তঃ বিস্তারিত আলোচনান্তে পারমথুরাপুর, আমতলা, তৈলটুপি ও রিশখালী সীমানা পিলার নির্মাণ করার জন্য একটি প্রাক্কলন প্রস্ত্তত পূর্বক সভায় উপস্থানের জন্য উপজেলা প্রকৌশলী, হরিনাকুন্ডুকে অনুরোধ জানানো হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ উপজেলা প্রকৌশলী, হরিনাকুন্ডু।

 

খ) চেয়ারম্যান, জোড়াদহ ইউ. পি আন্তঃ উপজেলা ফুটবল টুর্ণামেন্ট প্রতিযোগিতা করার প্রস্তাব করেন। বিষয়টি নিয়ে সভায়    বিস্তারিত আলোচনা হয়।

 

সিদ্ধান্তঃ বিস্তারিত আলোচনান্তে সভায় উপস্থিত সকলে একমত পোষন করেন, তবে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার মিটিং আহবান করে এ বিষয়টি চূড়ান্ত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

 

বাস্তবায়নেঃ সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা।

  

 

            অতঃপর আর কোন আলোচনা না থাকায় উপজেলা পরিষদের সকল কর্মকর্তাদের সময়মত অফিসে উপস্থিত ও জনগণের প্রয়োজনীয় সেবা প্রদানের অনুরোধ জানিয়ে উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপনপূর্বক সভাপতি সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

 

 

                                                                                                           (মোঃ সাজেদুল ইসলাম)

                                                                                                              প্যানেল চেয়ারম্যান

                                                                                                                উপজেলা পরিষদ

                                                                                                             হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ ।

 

স্মারক নংঃ ০৫.৪৪.৪৪১৪.০০১.০৪.০১০.১৩-৫৭৩(৪০)                                         তারিখ : ২৯/০৭/২০১৩ খ্রিঃ।

 

অনুলিপি বিতরণ : সদয় অবগতি/অবগতি ও কার্যার্থে -

 

১। মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য ৮২, ঝিনাইদহ-২।

২। জেলা প্রশাসক, ঝিনাইদহ।

৩। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ।

৪। জনাব ........................................................

 

          (মোঃ আবুল বশার)

          মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা

           হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ।